icon
Article Details

websiteearningchecker.com (ওয়েবসাইট আর্নিং চেকার ডট কম) এ কাজ করুন

Fiverr কি? ফাইভার থেকে টাকা আয় করার উপায়

img by mrt
29 Dec, 2023

আপনি কি কখনও ভেবে দেখেছেন কিভাবে Fiverr থেকে আয় করা যায়? অনলাইনে আয় করার অনেক উপায় আছে, তবে এটি তার মধ্যে একটি। Fiverr অনলাইনে টাকা ইনকামের অন্যতম জনপ্রিয় উপায় এবং আপনি এটি ব্যবহার করে সহজেই সীমাহীন টাকা ইনকাম করতে পারেন। ফাইবার হল অনলাইনে আয় করার এমন একটি মাধ্যম এই মাধ্যমটি ব্যবহার করে আপনি সেখানে বিভিন্ন কাজ করে আয় করতে পারেন।

ফাইবারে অসংখ্য কাজ রয়েছে যেগুলো থেকে অনেকেই হাজার হাজার ডলার আয় করছেন। আমাদের দেশে অনেক ফাইবার ব্যবহারকারী আছেন যারা কোন না কোন কাজ করেই অনলাইনে এই ফাইবারের মাধ্যমে টাকা আয় করছেন।

Fiverr কি? ফাইভার থেকে টাকা আয় করার উপায়

আজকের আর্টিকেলে আমি আপনাদের বলব Fiverr কি এবং কিভাবে ফাইবার থেকে টাকা আয় করা যায় তা বিস্তারিত আলোচনা করব।

Fiverr কি? (What is Fiverr)

ফাইবার সাধারণত একটি মার্কেটপ্লেস যেখানে বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং কাজ করা হয়। অনেক ফ্রিল্যান্সার ক্লায়েন্ট খুঁজতে বা এখান থেকে কাজ খুঁজে পেতে Fiverr ব্যবহার করে।

আবার অনেক ক্লায়েন্ট ফাইবার (Fiverr) থেকে তাদের কাজের জন্য ফ্রিল্যান্সার নিয়োগ করে। এখানে বিভিন্ন সেবা এবং কাজ বিক্রি করা হয়।

তাই ফাইবার অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করার জন্য আপনাকে অবশ্যই একজন ফ্রিল্যান্সার বা একজন ফ্রিল্যান্সারের গ্রাহক হতে হবে।

ফাইবারে বিভিন্ন ধরনের কাজ রয়েছে যেমন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ওয়েব ডিজাইন, কন্টেন্ট রাইটিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন, প্রোগ্রামিং এবং আরও অনেক ধরনের কাজ আপনি এখানে পাবেন।

তো এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝে গেছেন ফাইবার মার্কেটপ্লেস বা Fiverr কী। অনেকেই এই ফাইবার ব্যবহার করে মাসে হাজার হাজার ডলার আয় করছেন।

Fiverr কিভাবে কাজ করে? How does Fiverr work

অনেকে জিজ্ঞাসা করেন কিভাবে ফাইবার কাজ করে। আমি আপনাকে আগেই বলেছি যে ফাইবার একটি অনলাইন পোর্টাল যা বিভিন্ন ডিজিটাল পরিষেবা কিনতে ব্যবহার করা যেতে পারে।

Fiverr কীভাবে কাজ করে তা ভাবছেন তাদের জন্য, আমি নীচে বিস্তারিত ভাবে এটি নিয়ে আলোচনা করছি।

1. যারা ফ্রিল্যান্সার তারা প্রথমে বিভিন্ন ধরনের কাজের জন্য এই ফাইবারে একাউন্ট তৈরি করে।

2. তারপর ধরুন আপনি ফাইবারে চাকরির জন্য যান যদি আপনি কিছুতে ভাল হন তবে আপনি সেই বিষয়ে ফাইবারে একটি গিগ তৈরি করেন। এটি ফাইবারের অন্যান্য গ্রাহকদের আপনার কাজ সম্পর্কে জানতে অনুমতি দেবে। এবং আপনি ফাইবারে যে গিগ তৈরি করছেন তাকে বলা হয় ফাইবার গিগ।

3. যারা ফাইবারে কাজ বিক্রি করে তাদের ফাইবার বিক্রেতা বলা হয়।

4. আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হন তাহলে আপনার গিগ যদি ফাইবারে তৈরি হয় তাহলে বিভিন্ন কোম্পানি আপনার গিগ দেখার পর আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এবং আপনি এর মাধ্যমে কাজ পাবেন।

5. একজন ফ্রিল্যান্সার নিয়োগ করার সময়, ক্লায়েন্ট প্রায়ই ফ্রিল্যান্সারের অভিজ্ঞতা দেখেন এবং তিনি আগে কতটা কাজ করেছেন।

যদি কোন গ্রাহক আপনার কাজের বিবরণ দেখে আপনার সাথে কাজ করতে চান, তাহলে তাকে অবশ্যই নির্দিষ্ট মূল্য অগ্রিম পরিশোধ করতে হবে এবং তারপর কাজের অর্ডার দিতে হবে।

তারপর আপনি যদি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আপনার ক্লায়েন্টকে কাজটি সঠিকভাবে বুঝিয়ে দিতে পারেন, তাহলে আপনি সহজেই আপনার কাজের টাকা Fiverr থেকে নিতে পারবেন। তাই আপনাকে এতক্ষণে বুঝতে পারছেন কিভাবে ফাইবার কাজ করে।

ফাইবারে সেলার করে কিভাবে ইনকাম করবেন ?

ফাইবার থেকে আয়ের পথ অত সহজ নয়। তবে অনেকেই এই পথ অবলম্বন করে ফাইবার থেকে মাসে হাজার হাজার ডলার আয় করে চলেছেন।

ফাইবার থেকে আয় করার জন্য আপনার অবশ্যই কিছু দক্ষতা থাকতে হবে। যেমন আপনাকে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বা গ্রাফিক ডিজাইনারে দক্ষ হতে হবে অর্থাৎ ফাইবারে এমন অসংখ্য কাজ রয়েছে যেগুলো সম্পর্কে আপনাকে কম-বেশি জানতে হবে।

পরে আপনি এই কাজের জন্য ফাইবারে গিগ তৈরি করতে পারেন এবং এটি থেকে উপার্জন করতে পারেন। অথবা আপনি যে বিষয়ে ভালো সেই বিষয়ে একটি কোর্স করতে পারেন এবং সেখানে বিক্রি করে একজন লোক হিসেবে আয় করতে পারেন।

এতক্ষণে আপনি Fiverr সম্পর্কে জানেন, এখন আমি আপনাকে ফাইবার থেকে টাকা ইনকাম করার প্রক্রিয়া সম্পর্কে বলব। উদাহরণ স্বরূপ:

1. আপনি যে কাজটি ভাল পারেন সেই কাজটি ভালোভাবে করা চিন্তা-ভাবনা করুন,

2. তারপর আপনি ফাইবারের মাধ্যমে একটি বিক্রেতা অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন।

3. অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে গেলে সেটিংস অপশনে যান এবং পোর্টফোলিওতে আপনার কাজ উল্লেখ করুন।

4. তারপর আপনি আপনার কাজ সম্পর্কে ফাইবার এ একটি গিগ তৈরি করুন। এই গিগটি মূলত আপনি যে কাজটি করেন তা আপনি ফাইবারে বিক্রি করতে চান।

5. এখন একটি কোম্পানি বা ব্যক্তি আপনাকে আপনার নির্দেশ অনুসারে কিছু কাজ দিতে পারে এবং আপনাকে অবশ্যই একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজটি শেষ করতে হবে এবং তাদের কাছে পৌঁছে দিতে হবে।

6. তারপর কাজ ঠিকঠাক ভাবে বুঝিয়ে দেওয়ার পর আপনি ফাইবার থেকে আপনার অ্যাকাউন্টে সেই টাকা পেতে পারেন।

আপনি একটি ফাইবার অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন এবং এই পদ্ধতিগুলি অবলম্বন করে বিক্রেতা হিসাবে এটি থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন। আজ অনেকেই এই পদ্ধতি ব্যবহার করে ফাইবার থেকে হাজার হাজার ডলার আয় করছেন।

ফাইবারে কি কি কাজ রয়েছে ?

অনেক ফ্রিল্যান্সার তাদের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ারের জন্য এই ফাইবার প্ল্যাটফর্মটি বেছে নেয়। ফাইবার কী করে তার সঠিক ধারণা পাওয়া খুবই কঠিন। কারণ এখানে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ দেওয়া হয়।

কেউ ফাইবারের মাধ্যমে ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ করে, কেউ ফাইবারের মাধ্যমে গ্রাফিক ডিজাইনারের কাজ করে, আবার কেউ এর মাধ্যমে কনটেন্ট লেখার কাজ করে।

প্রত্যেকে তাদের কাজ করার জন্য এই ফাইবার প্ল্যাটফর্মটি ভিন্নভাবে ব্যবহার করে। এতক্ষণে আপনি সম্ভবত জানেন যে একজন ফ্রিল্যান্সার হতে কী লাগে।

ফ্রিল্যান্সার হওয়ার জন্য সব ধরনের কাজ শেখার দরকার, একবার আপনি একটি বিষয়ে দক্ষ হয়ে গেলে সেই সাবজেক্টে ফাইবার প্রচার করে সেখান থেকে কাজ পেতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সাররা ফাইবারে যেসব জনপ্রিয় কাজ করে তার কয়েকটি নিচে উল্লেখ করা হলো। উদাহরণ স্বরূপ:

  • গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কাজ 
  • ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ 
  • অ্যাপস তৈরির কাজ 
  • ওয়েব ডিজাইনের কাজ 
  • কন্টেন্ট রাইটিং এর কাজ 
  • ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ 

যারা ফাইবারে কাজ করতে চান, তারা সহজেই এই জনপ্রিয় চাকরির যেকোনো একটি বেছে নিতে পারেন, এবং তাদের দক্ষতা অনুযায়ী ফাইবারে কাজ করতে পারেন। এই সমস্ত ফাইবার কাজের জন্য আপনি হাজার হাজার গ্রাহক পাবেন।

ফাইবার থেকে কত টাকা আয় করা সম্ভব (How much money can be made from fiber)

আপনি এতক্ষণে নিশ্চয়ই জেনে গেছেন Fiverr কী। অনেকেই প্রশ্ন করেন ফাইবার থেকে কত টাকা আয় করা যায়? আপনার ইচ্ছা বা দক্ষতার উপর নির্ভর করে ফাইবার আপনি হাজার হাজার ডলার ইনকাম করতে পারেন।

ফাইবার থেকে কত টাকা আয় করা যাবে তার কোনো নির্দিষ্ট সীমা নেই। কেউ এখান থেকে মাসে 300 ডলার আয় করে আবার কেউ এখান থেকে মাসে 3000 ডলার আয় করে।

ক্লায়েন্টরা আপনার কাজের দক্ষতা এবং কাজের উপর ভিত্তি করে আপনাকে অর্থ প্রদান করবে। যদি তিনি আপনার কাজে খুশি হন, তাহলে তিনি পরে আবার আপনার সাথে কাজের বিনিময়ে যোগাযোগ করবেন এবং আপনি যত বেশি ডিল সম্পূর্ণ করবেন, তত বেশি টাকা ইনকাম করবেন।

আর যারা সঠিক দক্ষতার সাথে একজন ফ্রিল্যান্সার হন তারা সহজেই ফাইবার থেকে মাসে হাজার হাজার ডলার আয় করতে পারেন।

তাই ফাইবার থেকে কীভাবে আয় করা যায় বা ফাইবার থেকে কত আয় করা যায় এই প্রশ্ন যাদের ছিল, তারা হয়তো এতক্ষণে উত্তর পেয়ে গেছেন।

ফাইবারে কাজ করার কোনো ঝুঁকি রয়েছে কিনা

যারা ফাইবারে কাজ করেন তাদের জন্য কোন কাজের ঝুঁকি আছে কিনা বা তাদের অর্থপ্রদান নিয়ে তারা কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হলে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকে।

সারা বিশ্ব থেকে অনেক লোক দীর্ঘদিন ধরে এই প্ল্যাটফর্মে কাজ করছে এবং তারা এটির মাধ্যমে কাজ করে প্রতি মাসে অর্থ প্রদান করছে।

একবার আপনার ফাইবার অ্যাকাউন্টে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা থাকলে, আপনি সহজেই সেই অ্যাকাউন্ট থেকে ব্যাঙ্কে স্থানান্তর করতে পারেন।

ফাইবার অ্যাকাউন্ট অনেক কারণে সাসপেন্ড হতে পারে কিন্তু কখনও কখনও ফাইবার অর্থপ্রদান করতে কোনো ধরনের সমস্যা করে না।

তাই যারা ফাইবার ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে চান তারা কোনো ঝুঁকি ছাড়াই এখানে কাজ শুরু করতে পারেন। ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য এটি একটি অত্যন্ত বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট।

ফাইবারে কাজ করে কি ক্যারিয়ার গঠন করা সম্ভব

ফাইবারে যারা কাজ করেন তাদের বেশিরভাগই ফ্রিল্যান্সার। আর যারা কাজ দিয়ে থাকেন তারা বায়ার। তাই আমাদের দেশে অনেক ফ্রিল্যান্সার আছেন যারা ফাইবারে কাজ করে এখান থেকে প্রতি মাসে হাজার হাজার ডলার আয় করছেন।

যা যেকোনো চাকরিজীবীর বেতনের চেয়ে দুই থেকে পাঁচ গুণ বেশি। তাহলে বুঝতেই পারছেন ফাইবারে কাজ করে কতটা আয় সম্ভব।

যারা খুবই দক্ষ ফ্রিল্যান্সার তারা ফাইবার একাউন্ট ব্যবহার করে প্রতিমাসে ২ থেকে ৩ লাখ টাকা আয় করছেন।

তাই এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝে গেছেন ফাইবারে ফ্রিল্যান্সিং কাজ করে ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব কি না।

আপনি যদি সঠিক দক্ষতার সাথে একজন ফ্রিল্যান্সার হন, তবে ফাইবারে কাজ করে ক্যারিয়ার তৈরি করা অবশ্যই সম্ভব।

শেষ কথা,

ফাইবার ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য একটি জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেস। অনেক ফ্রিল্যান্সার এখানে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন। অনেকেই এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে এখান থেকে হাজার হাজার টাকা আয় করছেন।

আপনার যদি সঠিক কাজ জানা থাকলে এই প্ল্যাটফর্মে কাজের অভাব নেই। আমি আশা করি আজকের এই আর্টিকেল পড়ে আপনি Fiverr কী এবং কীভাবে এটি থেকে আয় করবেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পেয়েছেন।

যাইহোক, এই বিষয়ে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে, আপনি কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন এবং পোস্টটি ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

Related News

View All

To Write Your Thoughts Please Log in First

Login
Home
Task
My Team
Latest News
User Guide