মোবাইলের চার্জ দীর্ঘসময় পর্যন্ত ধরে রাখার কার্যকরী কিছু টিপস

সম্মানিত পাঠক আজ আপনাদের মাঝে যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব, এই বিষয় আপনাদের অনেক উপকারে আসবে বলে মনে করি, বর্তমান সময়ে আমরা অনেকেই স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকি, স্মার্টফোন ব্যবহার করে না এমন লোক খুঁজে পাওয়া বড়ই কঠিন, 

এখন বর্তমান নতুন প্রযুক্তির সময়ে আমরা অনেক বিষয়ে ঘাটাঘাটি এবং অনেক তথ্য সম্পর্কে জানতে পারি, অনেকেই আছেন মোবাইলে নাটক, গান, সিনেমা এবং সিরিয়াল দেখে থাকেন,

যারা মোবাইলে বিনোদন দেখতে ভালোবাসেন বা বিনোদন দেখে থাকেন তারা মোবাইলে চার্জ নিয়ে অনেক চিন্তিত থাকেন, তাই মোবাইলের চার্জ দীর্ঘ সময় পর্যন্ত ধরে রাখার কার্যকরী কিছু টিপস আপনাদের মাঝে শেয়ার করতে যাচ্ছি, আপনি যদি এসব বিষয় না জেনে থাকেন তাহলে নিচে এসব বিষয়গুলো স্টেপ বাই স্টেপ করে দেওয়া হল:

মোবাইলের চার্জ দীর্ঘসময় পর্যন্ত ধরে রাখার কার্যকরী 16 টি উপায় নিয়ে বিস্তারিত তথ্য আলোচনা করা হল: 

দীর্ঘক্ষণ মোবাইলের চার্জ ধরে রাখার টিপস : আজকাল স্মার্টফোন ছাড়া একটি দিনও কল্পনা করা যায় না। আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিনোদন ছাড়াও বিভিন্ন কাজে স্মার্টফোন ব্যবহার করি।

প্রত্যেকেরই অন্তত একটি স্মার্টফোন আছে। অ্যান্ড্রয়েড, আইফোন, উইন্ডোজ বা অন্য যেকোনো অপারেটিং সিস্টেমের ফোনই হোক না কেন, স্মার্টফোন ব্যবহার করতে আমাদের বেশ কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।

বিশেষ করে অনেক সময় আমরা সবাই একটি সাধারণ সমস্যার সম্মুখীন হই। আর তা হলো স্মার্টফোনের দ্রুত চার্জিংয়ে সমস্যা। সেজন্য অনেককেই জিজ্ঞেস করতে শুনি, কোন মোবাইল ফোনে সর্বোচ্চ চার্জ আছে?" মোবাইল চার্জ হচ্ছে কেন? মোবাইল চার্জ নেই কেন? ইত্যাদি।

তাই সিনিয়র বিডির আজকের পোস্টের বিষয় মোবাইলে চার্জ না থাকার কারণ এবং দীর্ঘক্ষণ মোবাইল চার্জে রাখার কার্যকরী উপায়।

আশা করি আপনাদের অনেক উপকার হবে। তাই ধৈর্য ধরে পুরো পোস্টটি পড়ুন। বয়সের সাথে সাথে স্মার্টফোনের ব্যাটারির কার্যক্ষমতা কমে যাওয়া স্বাভাবিক।

আমরা যে স্মার্টফোনগুলি ব্যবহার করি সেগুলির বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য রয়েছে। যা আমরা আমাদের প্রয়োজনে আবার কখনো অপ্রয়োজনে ব্যবহার করি। আর এই ফিচারগুলো আমাদের স্মার্টফোনের ব্যাটারির ওপর চাপ সৃষ্টি করে, ফলে ফোনের চার্জ খুব দ্রুত শেষ হয়ে যায়। তবে কিছু পদক্ষেপ নিলে আমরা এই সমস্যা থেকে অনেকাংশে মুক্তি পেতে পারি।

মোবাইলের চার্জ দীর্ঘসময় পর্যন্ত ধরে রাখার উপায়

1. মোবাইলের ডিসপ্লের উজ্জ্বলতা কমিয়ে রাখুন

ডিসপ্লের উজ্জ্বলতা কম রাখা মোবাইলের ব্যাটারি দীর্ঘক্ষণ চার্জ রাখার একটি খুব ভালো উপায়। এটি ফোন সেটিংস এবং শীর্ষ বিজ্ঞপ্তি বার থেকে বাড়ানো বা হ্রাস করা যেতে পারে। যতটা সম্ভব কম ডিসপ্লে ব্রাইটনেস ব্যবহারে অভ্যস্ত হোন। এভাবে ব্যবহার করলে দেখবেন আপনার মোবাইলের ব্যাটারির চার্জ অনেক দিন স্থায়ী হয়।

2.  অযথা ভাইব্রেশন চালু রাখা থেকে বিরত থাকুন

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা প্রয়োজনের বশে সারাদিন আমাদের ফোন ভাইব্রেট করে রাখেন। এটা মোটেও ঠিক নয়। ফোনের ভাইব্রেশন ফাংশন অতিরিক্ত ব্যাটারি শক্তি ব্যবহার করে। তাই একেবারে প্রয়োজন না হলে ফোনের ভাইব্রেশন মোড চালু রাখবেন না।

3. ফোন সঠিক নিয়মে চার্জ দেওয়া

অনেকেই সঠিকভাবে মোবাইলের চার্জ পরিশোধের নিয়ম জানেন না। আমরা অনেকেই আছি যারা মোবাইল চার্জ দিয়ে ঘুমাই। এমনকি ফোনের ব্যাটারি 100% পূর্ণ হওয়ার পরেও, মোবাইলটি ঘন্টার জন্য মোবাইল চার্জারের সাথে সংযুক্ত থাকে। এভাবে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফোন চার্জে রাখা ঠিক নয়।

কারণ সারারাত ফোন চার্জ করলে ব্যাটারি অতিরিক্ত গরম হয়ে বিস্ফোরিত হতে পারে। তাছাড়া ফোনের আপাত কোনো ক্ষতি না হলেও ফোনের ব্যাটারির চার্জ ক্ষমতা ধীরে ধীরে কমে যাবে। আপনি চাইলে মোবাইল চার্জ করার সঠিক নিয়ম জেনে নিতে পারেন।

4. ওয়াইফাই বা ডাটা কানেকশন বন্ধ করে রাখা

আমরা আমাদের স্মার্টফোনে ইন্টারনেট চালু করতে ওয়াইফাই বা ডেটা ব্যবহার করি। অনেক সময় আমরা ইন্টারনেট ব্যবহার না করলেও আমাদের ফোনের ডাটা বা ওয়াইফাই বন্ধ করে দেইনা।

যেমন, আমরা অনেকেই ঘুমাতে যাওয়ার আগেও এটা বন্ধ করি না।

মোবাইল দীর্ঘক্ষণ চার্জে রাখার জন্য প্রয়োজন না হলে আমাদের ডাটা বা ওয়াইফাই সংযোগ বন্ধ রাখতে হবে। বিশেষ করে, কাজে গিয়ে ঘুমানোর আগে।

5. ব্যাটারি সেভার চালু রাখুন

মোবাইল চার্জ বেশিক্ষণ রাখতে ব্যাটারি সেভার ব্যবহার করতে পারেন। আজকাল, বেশিরভাগ স্মার্টফোনে একটি ব্যাটারি সেভার বিকল্প রয়েছে। কিন্তু আপনি যদি আপনার ফোনে এটি খুঁজে না পান তবে আপনি ব্যাটারি সেভার অ্যাপ ব্যবহার করে এই পরিষেবাটি পেতে পারেন।

6.  ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপস বন্ধ রাখা

আমাদের ফোনে কিছু অ্যাপ আছে যেগুলো আমরা আমাদের ফোন ব্যবহার না করলেও স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলে। আপনি চাইলে সেই অ্যাপগুলোর ব্যাকগ্রাউন্ড অপশন বন্ধ করে দিতে পারেন যেগুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ নয়।

আর এর জন্য আপনি আপনার ফোনের সেটিংস থেকে ব্যাটারি নামক অপশনে গিয়ে সেই অ্যাপগুলো চেক করতে পারেন। তারপর সেখান থেকে, ব্যাকগ্রাউন্ডে চলা থেকে অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ বন্ধ করুন।

7.  অ্যানিমেটেড থিম এবং লাইভ ওয়ালপেপার ব্যবহার না করা

আমরা প্রায়ই আমাদের ফোন সুন্দর করার জন্য অ্যানিমেটেড থিম এবং লাইভ ওয়ালপেপার ব্যবহার করি। ফলস্বরূপ, আমাদের ফোন বেশি ব্যাটারি চার্জ খরচ করে। মোবাইলে দ্রুত চার্জ হয় না। তাই ফোনের চার্জ বাঁচাতে এসব অ্যানিমেটেড থিম ও লাইভ ওয়ালপেপার ব্যবহার না করাই ভালো।

8. লোকেশনসহ অন্যান্য ফাংশন বন্ধ করে রাখা

আমরা মাঝে মাঝে প্রয়োজন অনুসারে আমাদের ফোনে জিপিএস, লোকেশন ট্র্যাকার, ব্লুটুথ, হটস্পট, ডেটা সংযোগ, ওয়াইফাই ইত্যাদি ফাংশন চালু করি। কিন্তু প্রয়োজন ফুরিয়ে গেলে এগুলো বন্ধ করতে ভুলে যাই। এবং এই ফাংশনগুলি আমাদের ফোনের ব্যাটারির অতিরিক্ত চার্জ খরচ করে। তাই প্রয়োজনের সময় আমাদের এই বিকল্পগুলি বন্ধ করা উচিত।

9.  ডার্ক মোড বা কালো থিম ব্যবহার

আপনি চাইলে আপনার মোবাইলে ব্ল্যাক মোড বা ব্ল্যাক থিম সেট করতে পারেন। অথবা কালো ওয়ালপেপারও ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও, যদি আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার করি এমন সমস্ত অ্যাপগুলিতে ডার্ক মোড ব্যবহারের বিকল্প থাকে তবে সেগুলি ডার্ক মোডে ব্যবহার করুন।

যেমন: ফেসবুক, মেসেঞ্জার, ইনস্টাগ্রাম ডার্ক মোডে ব্যবহার করা যায়।

10. এয়ারপ্লেন মোড চালু করতে পারেন

যদি আপনার স্মার্টফোনটি বিমান মোডে রাখা হয়, তাহলে সমস্ত বেতার বৈশিষ্ট্য বন্ধ হয়ে যাবে। এতে করে চার্জ কম হবে। আর ফোনের এয়ারপ্লেন মোড আপনি চাইলেই চালু ও বন্ধ করতে পারবেন।

11.  অটো আপডেট ব্যবস্থা বন্ধ করে রাখুন

আপনার স্মার্টফোন অ্যাপের অটো-আপডেট বা অটো-আপডেট বৈশিষ্ট্যটি বন্ধ করুন। কারণ অটো আপডেট সিস্টেম চালু থাকলে বিভিন্ন অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপডেট হয়ে আপনার ফোনের ডেটা এবং ব্যাটারির চার্জ নষ্ট করে।

12.  পুশ নোটিফিকেশন বন্ধ রাখুন

ফেসবুক, ইমেইল, টুইটারসহ বিভিন্ন অ্যাপে 'পুশ নোটিফিকেশন' নামে একটি সুবিধা রয়েছে। যে অ্যাপগুলির বেশি ব্যবহারের প্রয়োজন হয় না সেগুলি থেকে এই অপশনটি বন্ধ রাখুন।

13.  আসল ব্যাটারি ব্যবহার করুন

যদি আপনার ফোনের ব্যাটারি শেষ হয়ে যায়, তাহলে আপনার আসল ফোনের ব্যাটারি ব্যবহার করার চেষ্টা করুন। দাম বেশি হলেও। কিছু লোক নিম্নমানের ব্যাটারি ব্যবহার করার পর, "কেন মোবাইল ফোনে চার্জ নেই? কেন মোবাইলের চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যায়? কেন মোবাইল চার্জ হতে দীর্ঘ সময় লাগে?" অভিযোগ ইত্যাদি।

ভালো ব্যাটারি ব্যবহার করলে আপনার ফোন ভালো থাকবে এবং ফোনের চার্জও অনেক সময় ব্যাকআপ দেবে।

14. লক স্ক্রিন নোটিফিকেশন চালু

সাধারণত, যখন ফোনটি লক করা থাকে, যদি অন্য কোনও অ্যাপ থেকে কোনও বার্তা বা বিজ্ঞপ্তি আসে, আপনাকে তা পরীক্ষা করতে লকটি খুলতে হবে। বারবার আনলক করা এবং চেক করার ফলে ফোনের ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যায়।

আর আপনি যদি ফোনের লক স্ক্রিন নোটিফিকেশন অপশনটি চালু রাখেন, তাহলে এই নোটিফিকেশনগুলো দেখতে আপনাকে বারবার ফোনের লক খুলতে হবে না। তাই ফোনের ব্যাটারি বাঁচাতে লক স্ক্রিন নোটিফিকেশন অপশন চালু রাখুন।

15.  অতিরিক্ত গেম খেলা এবং ভিডিও দেখা থেকে বিরত থাকুন

মোবাইল গেম খেলতে কে না ভালোবাসে! আর বর্তমান ছেলে-মেয়েদের অনেকেই PUBG, Free Fire এর মত গেমে আসক্ত। আপনি যদি আপনার মোবাইলকে দীর্ঘক্ষণ চার্জে রাখতে চান, তাহলে আপনার মোবাইলে গেম খেলার পরিমাণ কমিয়ে দিন।

আমরা সবাই কমবেশি মোবাইলে ভিডিও দেখতে অভ্যস্ত। কিন্তু আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা Facebook, YouTube, TikTok, Likei-এর মতো অ্যাপে লগ ইন করেন এবং ভিডিও দেখতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ব্যয় করেন।

ফোন দীর্ঘক্ষণ চার্জে রাখতে হলে অতিরিক্ত ভিডিও দেখা বন্ধ করতে হবে। আর ভিডিওটি অবশ্যই স্বাভাবিক মানের দেখতে হবে।

16 অটো লক

স্মার্টফোনে অটোলক সেট করতে 15 সেকেন্ড বা 30 সেকেন্ড নির্বাচন করুন। যাতে আপনি ফোন ব্যবহার না করলে ফোনের ডিসপ্লে লাইট বন্ধ হয়ে স্লিপ মোডে চলে যায়। আপনার ফোনের ডিসপ্লে যত বেশিক্ষণ চালু থাকবে, ততই এটি নিষ্কাশন হবে। এভাবেই মোবাইলের চার্জ বেশি রাখার 19 একটি সেরা উপায় নিয়ে আলোচনা করা হলো।

আমাদের কথা,

বন্ধুরা, আমাদের আজকের এই পোস্টে মোবাইলের চার্জ দীর্ঘসময় পর্যন্ত ধরে রাখার কার্যকরী কিছু টিপস আপনার কেমন লাগলো, "মোবাইলের চার্জ দীর্ঘসময় পর্যন্ত ধরে রাখার কার্যকরী কিছু টিপস" যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুবান্ধব এবং আত্মীয়-স্বজনদের মাঝে শেয়ার করবেন, ধন্যবাদ ?

Enjoyed this article? Stay informed by joining our newsletter!

Comments

You must be logged in to post a comment.

Related Articles