টেলিগ্রাম চ্যানেল থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়

টেলিগ্রাম নামটা কিন্তু আমরা সবাই শুনেছি। টেলিগ্রাম একটি জনপ্রিয় সামাজিক মেসেজিং অ্যাপ। আপনি টেলিগ্রামের মাধ্যমে যে কারও সাথে অনলাইনে চ্যাট করতে পারেন। কিন্তু অনেকেই এই টেলিগ্রাম থেকে মাসে ৩০ হাজার ৪০ হাজার টাকা আয় করছেন।

আমরা আগেই বলেছি কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায়। আজকের পোস্টে আমি আলোচনা করব কিভাবে আপনি টেলিগ্রাম থেকে আয় করতে পারবেন।

How to earn money from telegram channel

এর জন্য আপনার সেই ধরনের সৃজনশীলতার প্রয়োজন নেই। চ্যানেলটির অন্তত পাঁচ হাজার ফলোয়ার থাকলে প্রতি মাসে সহজেই ভালো টাকা আয় করা যায়।

টেলিগ্রাম কি (what is telegram)

আমি আগেই বলেছি, টেলিগ্রাম একটি জনপ্রিয় সামাজিক মেসেজিং অ্যাপ। হোয়াটসঅ্যাপে যে সব ফিচার পাবেন কিন্তু টেলিগ্রামে পাবেন। যে কারো সাথে চ্যাট করুন, অডিও কল, ভিডিও কল, যেকোনো ফাইল ভিডিও অডিও সব কিছু পাঠান এই টেলিগ্রামের মাধ্যমে।

এছাড়াও আপনি টেলিগ্রামে চ্যানেল তৈরি করতে পারেন যেখানে অনেক লোক যোগ করতে পারে। কিভাবে টেলিগ্রাম চ্যানেল খুলতে হয় তা নিয়ে আগেই আলোচনা করেছি (how to create telegram channel in Bengali)

টেলিগ্রাম চ্যানেল থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় (earn money online from telegram)

আপনার একটি কথা জানা খুব দরকার টেলিগ্রাম চ্যানেল সম্পর্কে জানতে হবে, কিন্তু তারা আপনাকে কোন টাকা দেবে না। প্রথমে আপনাকে একটি টেলিগ্রাম চ্যানেল খুলতে হবে।

এবং তারপর সেই চ্যানেলে কিছু ফলোয়ার বাড়াতে হবে। কিভাবে আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে ফলোয়ার বাড়ানো যায় তা নিয়ে আলোচনা করেছি। টেলিগ্রামে আপনার যদি কমপক্ষে ৫০০০ ফলোয়ার থাকে তবে আপনি নিজেই revenue generate করতে পারবেন।

কোন কোন উপায় টেলিগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন:

টেলিগ্রাম থেকে টাকা ইনকামের বিভিন্ন উপায় রয়েছে এবং আমি সেগুলি একের পর এক আলোচনা করতে যাচ্ছি।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং (affiliate marketing)

অনেকেই টেলিগ্রাম চ্যানেল খুলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে প্রচুর টাকা আয় করছেন। আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে যদি অনেক সদস্য থাকে তবে আপনি টেলিগ্রাম চ্যানেলের মাধ্যমে যেকোনো কোম্পানির পণ্য বিক্রি করতে পারবেন।

কিন্তু আপনি সেই কোম্পানি থেকে অনেক কমিশন পাবেন, অর্থাৎ আপনি যেকোন পণ্য বিক্রি করতে পারবেন সেই কোম্পানি থেকে কমিশন পাবেন, উদাহরণস্বরূপ, আপনি Amazon, Flipkart ইত্যাদির অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামে যোগ দিতে পারেন এবং যে কোনো পণ্য বিক্রি করে আয় করতে পারেন। টেলিগ্রাম চ্যানেলের মাধ্যমে।

রেফারাল ইনকাম (referral income)

যেহেতু ইউটিউবে অনেক উপার্জন সম্পর্কিত চ্যানেল রয়েছে, তারা তাদের ভিডিও বিবরণে আয়ের অ্যাপের লিংক দেয় এবং যদি কেউ সেই লিংক থেকে ডাউনলোড করে তবে সংস্থা তাদের অর্থ প্রদান করে, এটিই রেফারেল আয়। কিন্তু এখান থেকে ডাউনলোড করলে আপনি অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

রিসেলিং ইনকাম (reselling income)

আপনি টেলিগ্রাম চ্যানেলে যেকোন পণ্যের পণ্য রেখে যান এবং কেউ যদি সেই পণ্যগুলি নিতে চান, আপনি কিছু অর্থের ব্যবধানে তাদের ঠিকানায় পণ্য পৌঁছে দেবেন, এমন অনেক অ্যাপ রয়েছে যেমন Meesho, Shop 101 ইত্যাদি।

 পেইড প্রমোশন (paid promotion)

আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে যদি প্রচুর ফলোয়ার থাকে, তাহলে আপনি অর্থপ্রদানের প্রচার করে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারেন।

যেমন- আপনি আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে যেকোনো পণ্য বা ব্র্যান্ডের প্রচার করতে পারেন। এজন্য আপনাকে ক্লিন্টকে খুঁজে বের করতে হবে। আপনি বিভিন্ন ফেসবুক পেজে একটি লাইন যোগ করতে পারেন।

চ্যানেল প্রমোশন (channel promotion)

আপনি আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে অন্য কোনো টেলিগ্রাম চ্যানেল প্রচারের জন্য চার্জ করতে পারেন। কিন্তু অনেকেই এভাবে অনেক টাকা আয় করছেন।

তো বন্ধুরা এইভাবে আপনি টেলিগ্রাম চ্যানেল থেকে আয় করতে পারবেন, আশা করি আপনি পুরোপুরি বুঝতে পেরেছেন কিভাবে টেলিগ্রাম থেকে আয় করতে হয়।

আপনার বুঝতে কোন অসুবিধা হলে, আপনি নীচে মন্তব্য করতে পারেন এবং আপনি কি ধরনের পোস্ট চান, আমাদের জানাতে পারেন, ধন্যবাদ?

Enjoyed this article? Stay informed by joining our newsletter!

Comments

You must be logged in to post a comment.

Related Articles